ফ্রিল্যান্সিং কি? ফ্রিল্যান্সিং করে কি ইনকাম করা যায়?

ফ্রিল্যান্সিং কি? ফ্রিল্যান্সিং করে কি ইনকাম করা যায়?

ফ্রিল্যান্সিং কি কথাটি শোনলেই লোভ জাগে! আপনি কি ফ্রিল্যান্সিং করে মাসে মিনিমাম ১০০০ ডলার ইনকাম করতে চান? নিজের প্রতি বিশ্বাস রাখুন আপনিও পারবেন। অন্যরা পারলে আপনি কেন পারবেন না; কেন আপনি পিছিয়ে থাকবেন? সূর্য নিজেও ভোরবেলা দুর্বল থাকে, এরপর ধীরে ধীরে শক্তি আর সাহস সঞ্চয় করে। জ্ঞান, ধৈর্য শক্তি আর সতসাহস থাকলেই আপনি সফল।

কেন ফ্রিল্যান্সিং করবেন? আপনি কোন কোম্পানিতে মিনিমাম ৮-১০ ঘন্টা কাজ করে ১৫ থেকে ২০ হাজার ইনকাম করতে পারবেন এতে কোন সন্দেহ নাই। কিন্তু এই কয়টাকা ইনকামের জন্য কত যে অফিসিয়াল চাপ, বসের চাপ আরো কত কিছু যে সৈয্য করতে হয়!

আসুন মুক্ত পেশায় নিজের জীবন গড়ি। ফ্রিল্যান্সিং কি তা জানুন, কেথায় কাজ করবেন কিভাবে কাজ করবেন অনলাইনে কি ইনকাম করা যায়? এটা কি আসলেই সত্য? সব প্রশ্নের উত্তর আপনাদের জন্য নিচে রইল; ধৈর্য্য সহকারে পড়ুন।

ফ্রিল্যান্সিং কি?

ফ্রিল্যান্সিং হল একটি চুক্তিভিত্তিক মুক্ত পেশা যেখানে কোনো প্রতিষ্ঠানে নিয়োগ পাওয়ার পরিবর্তে, কোন ব্যক্তি তার দক্ষতা এবং অভিজ্ঞতা ব্যবহার করে বেশ দেশ বিদেশের ক্লায়েন্টকে সেবা প্রদান করেন।

সহজ কথায়, ফ্রিল্যান্সিং হল এমন একটি পেশা যা আপনার কর্মদক্ষতা, শিক্ষা এবং বাস্তব অভিজ্ঞতাকে কাজে লাগিয়ে এক বা একাধিক ক্লায়েন্টের কাজ করে থাকেন। একজন ফ্রিল্যান্সার কারো কাছে প্রতিশ্রুতি না দিয়ে মুক্তভাবে কাজের ক্যাটালগ সাথে কাজের বাজেট গ্রহণ করেন। আপনি অভিজ্ঞতার উপর ভিত্তি করে যে কাজগুলি নিতে পারেন তার সংখ্যা তাদের কাছ থেকে চাওয়া অনুযায়ী সেগুলি প্রদান করার আপনার ক্ষমতার উপর নির্ভর করে।

ফ্রিল্যান্সিংয় হচ্ছে মুক্ত পেশা যা আপনাকে ঘরে বসে কাজ করতে দেয়। আপনি ম্যাক্সিমাম কাজ ঘরে বসেই করতে পারবেন কিন্তু ফ্রিল্যান্সিং এর মানে এই নয় যে আপনি বাড়ি বসেই শুধু কাজ করবেন। কাজের ধরন এবং ক্লায়েন্টের প্রয়োজনীয়তার উপর নির্ভর করে আপনাকে আপনার ক্লায়েন্টের অফিসেও কাজ করতে হতে পারে।

বাড়ির কাজের একটি কাজ আপনার এবং একজন একক নিয়োগকর্তার মধ্যে একটি চুক্তি জড়িত যে আপনাকে বেতন দেয় যখন ফ্রিল্যান্সিং করে না। এটা ঠিক যে ফ্রিল্যান্সাররা যে কাজগুলি সম্পাদন করে তার অনেকগুলি কোম্পানি বা ক্লায়েন্টদের জায়গায় তাদের উপস্থিতি ছাড়াই ইন্টারনেটের মাধ্যমে বিতরণ করা যেতে পারে।

ফ্রিল্যান্সিং ইতিবাচক এবং নেতিবাচক সমান অংশ। আপনাকে শুধু সিদ্ধান্ত নিতে হবে যে আপনি ঝুঁকি নিতে ইচ্ছুক কিনা যা প্রায় সবসময় এটির সাথে থাকে। ফ্রিল্যান্সিং মানে পেশাদার স্বাধীনতা, তবে এর অর্থ অস্থিরতা এবং ব্যর্থতার ঝুঁকিও।

এবং এটি আপনার পেশাদার জীবনে যা প্রয়োজন তা নাও হতে পারে। কিন্তু যদি আপনি একটি ঐতিহ্যগত কাজের চেয়ে আপনার পেশাদার লক্ষ্যগুলির সাথে আরও বেশি কিছুর জন্য আপনার স্থিতিশীলতার ঝুঁকি নিয়ে থাকেন তবে আপনার কাছে আপনার নাম এবং খ্যাতি তৈরি করা এবং আপনার পেশাদার লক্ষ্যে পৌঁছানোর সুযোগ রয়েছে।

ফ্রিল্যান্সিং করে কি ইনকাম করা যায়?

বর্তমানে ফ্রিল্যান্সিং কি শব্দিটি খুবই পরিচিত কিন্তু অনেকের মনে এখনও প্রশ্ন আসে ফ্রিল্যান্সিং করে কি সত্যিই ইনকাম করা যায়? সহজ কথায়, ১০০% ইনকাম করা যায়। কিন্তু ফ্রিল্যান্সিং এর একটা অশুবিধা আছে যেমন আপনি যদি কোন কাজ না জানেন তাহলে ফ্রিল্যান্সিং আপনার জন্য না!

আপনি যদি অনলাইনে ইনকাম করতে চান তাহলে অবশ্যইে কোন একটি নির্দিষ্ট কাজে এক্সপার্ট হতে হবে। আপনার যদি আগের চাকরি থেকে দক্ষতা থাকে তাহলে সেই দক্ষতার আলোকে ফ্রিল্যান্সিং শুরু করুন। যদি একজন ক্লায়েন্ট আপনাকে সেই ধরনের কাজটি করার জন্য অর্থ প্রদান করতে ইচ্ছুক হন, তাহলে এটি আপনার জন্য বেশ ভালো! এটি এমন একটি দক্ষতা যা আপনি সম্ভবত একটি ফ্রিল্যান্স ব্যবসা শুরু করতে পারেন।

আপনার শেষ কয়েকটি চাকরি সম্পর্কে চিন্তা করুন: সেই কোম্পানিগুলির জন্য আপনাকে কী অর্থ প্রদান করা হয়েছিল?
হাল ছাড়বেন না – আপনি যদি, গ্রাফিক ডিজাইন, ফটোগ্রাফি, আর্টিকেল রাইটিং, ওয়েভ ডিজাইন এন্ড ডেভেলপমেন্ট পারেন। এটি আপনার জন্য অনেক হেল্পফুল হবে

যদি নির্দিষ্ট সফ্টওয়্যার ব্যবহার করার প্রয়োজন হয়, যেমন: অ্যাডোব ফটোশপ, ফিগমা, স্কেচ, মাইক্রোসফ্ট পাওয়ারপয়েন্ট, মাইক্রোসফ্ট এক্সেল এবং আরও অনেক কিছু। তাহলে আপনি অনলাইনে কাজ করে দিতে পারবেন।

কোন কোন সাইট থেকে ইনকাম করা যায়?

আপনি যদি ফ্রিল্যান্সিং কি সম্পর্কে একটি কমপ্লিট ধারনা অর্জন করেছেন। এবং বেশ কিছু বাস্তব কাজের অভিজ্ঞতাও অর্জন করেছেন তাহলে আপনি ইনকামের সাইটগুলোতে একাউন্ট খুলতে পারের। কিন্তু কোন ওয়েভ সাইটে একাউন্ট খুলবেন? আপনার কাজের লেভেল যদি বিগিনার হয়ে থাকে তাহলে আপনার জন্য ফাইবার বেষ্ট হবে। এই মার্কেটপ্লেসে হাজার হাজার ফ্রিল্যান্সার কাজ করতেছে তাদের যোগ্যতা অনুসারে প্রোফাইল তৈরি করে।

ফ্রিল্যান্সিং ইনকামের কাজের সাইট

ফাইবার: ফ্রিল্যান্স চাকরি খোঁজার জন্য বিশ্বের বৃহত্তম মার্কেটপ্লেস। আপনি যা করতে পারেন শুধু একটি অ্যাকাউন্ট পোস্ট তৈরি করুন, কয়েকটি লিঙ্ক যুক্ত করুন এবং আপনার কাজ শেষ।

ফ্রিল্যান্সিং কি? ফ্রিল্যান্সিং করে কি ইনকাম করা যায়?
ফ্রিল্যান্সিং কি

ফাইবার কি তা জানুন; কেন ফাইবারে কাজ করবেন? নতুনদের জন্য ফাইবার ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেস একটি পারফেক্ট প্লেস যেখানে কাজ পাওয়া অনেক সহজ। একটা কাজ ঠিক ঠাক মত করতে পারলেই পারবর্তীতে আর কাজের অভার হয় না। আরেকটা বড় সুবিধা হলো এখানে দুই ভাবে কাজ পাওয়া যায় এক অটোমেটিক কাজ চলে আসে (ক্লায়েন্ট অফার করে)। আরেকটা হলো আপনি চাইলে কায়েন্টের কাজের ধরন দেখে কায়েন্টকে অফার পাঠাতে পারেন।

৯৯ডিজাইন: আপনি যদি একজন ডিজাইনার হন তাহলে ফ্রিল্যান্সিং চাকরি খোঁজার একটি উপযুক্ত জায়গা।

ফ্রিল্যান্সিং কি? ফ্রিল্যান্সিং করে কি ইনকাম করা যায়?
ফ্রিল্যান্সিং কি

আপনি যদি ডিজাইনের কাজ ভাল জানেন তাহলে এই  মার্কেটপ্লেস পারফেক্ট প্লেস যেখানে কাজ পাওয়া অনেক সহজ হবে।

আপওয়ার্ক: আপওয়ার্ক কি কেন আপওয়ার্ক জনপ্রিয়? একটি খুবই জনপ্রিয় ফ্রিল্যান্স মার্কেটপ্লেস যেখানে আপনি ব্যবসায়িক ক্লায়েন্ট বা একজন ফ্রিল্যান্সার হিসেবে কাজ করতে পারেন।

ফ্রিল্যান্সিং কি? ফ্রিল্যান্সিং করে কি ইনকাম করা যায়?
ফ্রিল্যান্সিং কি

এখানে কাজ করতে চাইলে আপনাকে কাজের এক্সপার্ট হতে হবে। আপনি প্রথমে আপওয়ার্কে সাইন-আপ করে তারপর নিজের প্রোফাইলটি ১০০% করুন। তারপর ক্লায়েন্টকে কাজের রিকোয়েস্ট পাঠান।

ফ্রিল্যান্সার ডট কম: Freelancer.com ফ্রিল্যান্সার ডট কম কি? ফ্রিল্যান্সার ডট কম হল সবচেয়ে পুরানো ফ্রিল্যান্স কাজের মার্কেটপ্লেস যা আপনি আপনার প্রাথমিক বছরে বেছে নিতে পারেন যখন আপনার ফ্রিল্যান্স অভিজ্ঞতা কম।

ফ্রিল্যান্সিং কি? ফ্রিল্যান্সিং করে কি ইনকাম করা যায়?
ফ্রিল্যান্সিং কি

কিন্তু এই ফ্রিল্যান্স ওয়েবসাইটগুলিতে যাওয়ার আগে, আপনাকে নিজের জন্য একটি ফ্রিল্যান্স ব্র্যান্ড সেট আপ করতে হবে।

ফ্রিল্যান্সিং করে কত টাকা ইনকাম করা যায়?

টাইটেল দেখে মনে হয় খুব চিন্ত হচ্ছে কত টাকা বলব! ফ্রিল্যান্সিং কি এটা করে মাসে ১০০০ ডলার ইনকাম করা যায়, বিশ্বাস হচ্ছে না! অনেক প্রমান আছে আপনি মার্কেটপ্লেসে একাউন্ট করলেই বোঝতে পারবেন।

ফ্রিল্যান্সিং কাজ করে কত টাকা ইনকাম করা যায় এটা ডিপেন্ড করে ফ্রিল্যান্সারের  কাজর অভিজ্ঞতার উপর। যে কাজে এক্সপার্ট সে মাসে ২-৩ হাজার ডলার ও ইনকাম করতে পারে। এখন আপনি চিন্তা করুন কত টাকা ইনকাম করবেন? হতাশ হবেন না ফ্রিল্যান্সিং করা আসলে ধৈর্যের ব্যাপার। যার ধৈর্য যত বেশি তার ইনকাম তত বেশি।

আপনার লক্ষ্য বাজার নির্ধারণ করুন

আপনি যে প্ল্যাটফর্মগুলিতে (ফ্রিল্যান্সিং ওয়েবসাইট) সার্ভিস ‍দিতে চান সেগুলি খুঁজুন। তাদের সকলের জন্য একটি অভিন্ন ব্যবহারকারীর নাম চয়ন করুন। এটি আপনাকে আপনার ব্র্যান্ডের পরিচয় তৈরি করতে সহায়তা করে।

পোর্টফোলিও তৈরি করুন

প্ল্যাটফর্মগুলিতে একটি অনলাইন পোর্টফোলিও তৈরি করুন; ডেভেলপারদের জন্য GitHub, ডিজাইনারদের জন্য Behance ইত্যাদি। আপনার দক্ষতা এবং প্রতিভা প্রদর্শনের জন্য একটি ব্যক্তিগত পোর্টফোলিও ওয়েবসাইট তৈরি করার খুবই দরকার যেখানে উল্লেখ থাকবে ফ্রিল্যান্সিং কি এবং এই বিষয়ে আপনার পর্যাপ্ত ধারনা আছে।

আপনার সকল তথ্য ওয়েভসাইটে সাবমিট করুন যা একজন ইউজার বা ক্লায়েন্টকে বুঝতে সুবিধা হয় যে আপনি এই কাজে এক্সপার্ট।

আপনার পরিষেবাগুলি বাজারজাত করুন

সোশ্যাল মিডিয়ায়  আপনার পরিষেবাগুলি শেয়ার করুন, বিনামূল্যে বা খুব কম খরচে কিছু অফার করুন। রেফারেলের জন্য জিজ্ঞাসা করুন এবং ইমেল মার্কেটিং ব্যবহার করুন৷ এতে করে আপনার অনলাইন পরিচিতি বৃদ্ধি পাবে এবং কাজ পেতে সুবিধা হবে।

শেষ কথা:

আমরা আপনাকে আপনার বিদ্যমান আয়ের উৎস ছেড়ে ফ্রিল্যান্সিংয়ে ঝাঁপিয়ে পড়ার পরামর্শ দিই না। প্রাথমিক মাসগুলিতে ফ্রিল্যান্সিং কি এই সম্পর্কে  ধারনা নিন এবং এটি আপনার জন্য কীভাবে কাজ করে তা দেখতে একটি খণ্ডকালীন উদ্যোগ হিসাবে এটি ব্যবহার করে দেখুন।

এটি সম্পূর্ণরূপে প্রয়োজনীয় নয় যে আপনাকে সম্পূর্ণ সময় ফ্রিল্যান্স করতে হবে। আপনি এটি সম্পূর্ণ সময় করতে চান নাকি আপনার বিদ্যমান কাজটি রাখতে চান এবং আপনার অবসর সময়ে অর্থ উপার্জন করতে চান তা সিদ্ধান্ত নেওয়া আপনার উপর নির্ভর করে। আপনার কোন পরামর্শ থাকলে আমদের কে জানাতে পারেন। ধন্যবাদ আপনার মূল্যবান সময় দিয়ে সম্পূর্ণ পোষ্টটি পড়ার জন্য।

2 thoughts on “ফ্রিল্যান্সিং কি? ফ্রিল্যান্সিং করে কি ইনকাম করা যায়?”

  1. ভাই অনলাইনে ইনকাম করতে চাই। কিভাবে করব? প্লিজ ভাই আরো কিছু তথ্য দেন।

Leave a Comment

Your email address will not be published.